E-Shram Card অসংগতি শ্রমিকদের জন্য ই-শ্রম কার্ড অনলাইন আবেদন ২ লক্ষ টাকা ফ্রি

 



কেন্দ্র সরকার অসংগঠিত ক্ষেত্রের শ্রমিকদের জন্য নতুন পোর্টাল ‘ই-শ্রম’ (E-shram Portal) পোর্টাল চালু করেছে। এই পোর্টালের মাধ্যমে নির্মাণ শ্রমিক, পরিযায়ী শ্রমিক, হকার, ক্ষুদ্র ও প্রান্তিক চাষী,কৃষি শ্রমিক , ভাগ চাষি,জেলে মানুষ,পশুপালনে নিয়োজিত শ্রমিক,রোলিং এবং প্যাকিং বিল্ডিং, নির্মাণ শ্রমিক,চামড়া শ্রমিক,তাঁতি ছুতার,লবণ শ্রমিক, ইট ভাটা, পাথরের খনিতে কাজ করা শ্রমিক,কল কারখানায় নিযুক্ত শ্রমিক,খবর কাগজ বিক্রেতা,

অটো ড্রাইভার,পরিযায়ী শ্রমিক,আশা -অঙ্গনওয়াড়ি কর্মী,১০০ দিনের কাজের শ্রমিক,সি এস সি কর্মী (ট্যাক্স না দিয়ে থাকলে )ও পরিচারকের মতো ইত্যাদি দেশের অসংগঠিত ক্ষেত্রের শ্রমিকদের বিভিন্ন সামাজিক সুরক্ষামূলক প্রকল্পের আওতায় আনা হবে, বৃহস্পতিবার এমনটাই জানানো হয়েছে কেন্দ্রীয় শ্রম মন্ত্রকের তরফে।


আর এই ই-শ্রম পোর্টালে ইতিমধ্যেই নাম রেজিষ্ট্রেশন শুরু হয়েছে।সারা দেশ জুড়ে অসংগঠিত শ্রমিকরা এই পোর্টালে নাম নথিভুক্ত করতে পারবেন। ই শ্রম পোর্টালে নাম নথিভুক্ত করলে শ্রমিকরা একটি E-Shram Card পাবেন,যেখানে ১২ সংখ্যা UAN Number(Universal Account Number) থাকবে।অসংগঠিত শ্রমিকদের জাতীয় পর্যায়ের ডেটাবেস তৈরি করে কেন্দ্রের নানা প্রকল্পের সুবিধা দেওয়ার আওতায় আনা হবে। যদি আপনি এই কার্ডের জন্য আবেদন করেন ও কার্ড টি পেয়ে থাকেন তাহলে এই সুবিধা আপনিও পাবেন। আপনি অনলাইনে ঘরে বসে সমস্ত কাজ করতে পারবেন ও কার্ড আপনি অনলাইনেই পেয়ে যাবেন।


কেন্দ্রীয় শ্রমমন্ত্রী ভূপেন্দ্র যাদব জানিয়েছেন, এই(ই-শ্রম) পোর্টালে রেজিস্ট্রেশন করা থাকলে সেই সমস্ত শ্রমিকের কাছে সরকারি স্কিমের সুবিধা পৌঁছে দেওয়া যাবে। পাশাপাশি ই-শ্রম কার্ড যাঁদের থাকবে সেই শ্রমিকদের ২ লক্ষ টাকার বিমাও দেওয়া হবে। যদি কোনও শ্রমিকের দুর্ঘটনার কবলে পড়ে মৃত্যু হয় অথবা সম্পূর্ণ অক্ষম হয়ে পড়েন, সেক্ষেত্রে বিনামূল্যে ২ লক্ষ টাকা বিমা পাবেন। আর দুর্ঘটনায় যদি কেউ আংশিক অক্ষম হয়ে পড়েন, তাহলেও ১ লক্ষ টাকা বিমা হিসাবে দেওয়া হবে।


ই-শ্রম পোর্টালে আবেদন পদ্ধতি ( E-Shram Card Online Apply):


1) প্রথমে আপনাকে ই-শ্রম পোর্টালের অফিসিয়াল ওয়েবসাইটে আসতে হবে।


ওয়েবসাইট লিংকঃ


২) এরপর রেজিস্ট্রার অন ই-শ্রম(Register On E-Shram) অপশনে ক্লিক করতে হবে।


৩) পরবর্তী পেজে আপনার মোবাইল নাম্বার ও নিচে থাকা ক্যাপচার কোর্ড বসিয়ে দিয়ে Send OTP তে ক্লিক করতে হবে। এরপর OTP বসিয়ে দিয়ে সাবমিট করতে হবে ও পরবর্তী পেজে আধার কার্ড নাম্বার বসিয়ে দিয়ে এগিয়ে যেতে হবে।


৪) এরপর পরবর্তী পেজে আপনার আধার কার্ডের সমস্ত ডিটেইলস দেখা যাবে-নাম,বাবার নাম,ঠিকানা, জন্ম তারিখ, ছবি ইত্যাদি এরপর নিচে Continue To Enter Others Details এ ক্লিক করে এগিয়ে যেতে হবে।


৫) এরপর পরের পেজে আপনার মোবাইল নাম্বার, জিমেইল আইডি, বাবার নাম,বিবাহিত কি না,রক্তের গ্রুপ ইত্যাদি সিলেক্ট করে Save & Continue এ ক্লিক করে এগিয়ে যেতে হবে।


৬) এরপর আপনাকে আপনার রাজ্যের নাম সিলেক্ট করতে হবে, আপনার জেলার নাম,ঠিকানা, গ্রাম, পিন কোর্ড ইত্যাদি বসিয়ে দেওয়ার পর আবারও নিচে Save & Continue এ ক্লিক করে এগিয়ে যেতে হবে।


৭) এরপর শ্রমিকের শিক্ষাগত যোগ্যতা, মাসিক ইনকাম,শ্রমিক কিরকম কাজ করে ইত্যাদি বসিয়ে দিয়ে Save & Continue এ ক্লিক করে এগিয়ে যেতে হবে।


৮) এরপর শ্রমিকের নিজস্ব ব্যাঙ্ক অ্যাকাউন্ট নাম্বার দিতে হবে,নাম,ব্যাঙ্কের নাম,IFSC Code,শাখার নাম ইত্যাদি বসিয়ে দিয়ে এগিয়ে যেতে হবে।


৯) এরপর আপনি সমস্ত তথ্যের একবার Preview দেখতে পারবেন, যদি সবকিছু ঠিক মনে হয় নিচে T&C ক্লিক করে সাবমিটে ক্লিক করলেই আপনি আপনার কার্ডটি পেয়ে যাবেন। এরপর কার্ডটি প্রিন্ট করে যত্ন করে রেখে দেবেন সেখানে আপনার UAN Number দেখতে পাবেন।


অসংগঠিত শ্রমিকদের ই-শ্রম কার্ড আবেদন করার জন্য বয়স থাকতে হবে ১৬ থেকে ৫৯ বছরের মধ্যে।

Biplab Mondal

(BanglarBarta24x7.in) একটি বাংলা ভাষার ওয়েবসাইট। ভারতবর্ষের কেন্দ্রীয় সরকার এবং বিভিন্ন রাজ্য সরকার প্রতিবছর সরকারের কার্যকলাপ পরিচালনার জন্যে অনেক কর্মী নিয়োগ করে থাকে, সেই কর্মী নিয়োগের জন্যে বিভিন্ন দপ্তরে, বিভিন্ন সময়ে কর্মী নিয়োগের বিজ্ঞপ্তি প্রকাশিত করে থাকে। আমরা দেশের বিভিন্ন সরকারের চাকরির এবং সরকারি প্রকল্পের অফিসিয়াল নোটিশের খোঁজ রাখি এবং তা সহজ বাংলা ভাষায় আমাদের ওয়েবসাইটে জানিয়ে থাকি। telegram instagram facebook twitter


কোনোরকম জিজ্ঞাসা বা মতামত থাকলে কমেন্ট করুন ....

একটি মন্তব্য পোস্ট করুন (0)
নবীনতর পূর্বতন